আপনার লিংকডইন প্রোফাইল সাজাবেন যেভাবে

লিংকডইন একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। মূলত প্রোফেশনালদের জন্যেই এই প্লাটফর্মটি তৈরি হয়েছে। বর্তমানে এই প্লাটফর্মে প্রায় ৭৬৬মিলিয়ন ইউজার রয়েছে, যেখানে প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ৫৫টি জব এপ্লিকেশন আসে। বিভিন্ন জব খুজে পাওয়া বা নিয়োগ দেয়ার জন্যে লিংকডইন একটি চমতকার প্লাটফর্ম। তবে এখানে জব পেতে হলে আপনার প্রোফাইলটি প্রোফেশনাল মানের হওয়া দরকার। আজকে আমরা লিংকডইন প্রোফাইল তৈরি করার নিয়ম | লিংকডইন ব্যবহার করে ক্লায়েন্ট খুঁজে পেতে প্রোফাইল কিভাবে সাজাবেন এই বিষয়গুলো বিস্তারিত তুলে ধরব। তবে তার আগে জেনে নিই লিংকডইন সম্পর্কে কিছু বেসিক ইনফরমেশন।

লিংকডইন পরিচিতি

লিংকডইন আমেরিকান বিজনেস রিলেটেড একটি অনলাইন সার্ভিস ছিলো যা বর্তমানে সারাবিশ্বে প্রোফেশনালদের প্লাটফর্ম নামে পরিচিত। ২০১৬সালে লিংকডইন মাইক্রোসফটের অধীনে আসে। লিংকডইন এর হেড অফিস আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়াতে। ২০০২সালে রিড হফম্যান ও তার সহযোগী ক্রিয়েটিভ কিছু মানুষের হাত ধরে তৈরি হয় লিংকডইন। আস্তে আস্তে এগোতে থাকে এর পরিসর। ২০০৬ সালে তারা প্রথম মুনাফা অর্জনে সক্ষম হয়। এরপরের বছরে লিংকডইন ইউজারের সংখ্যা হয় প্রায় ১০মিলিয়ন। ২০০৮সালে লিংকডইন এর মোবাইল ভার্সন লঞ্চ করা হয়। এরপর থেকে লিংকডইন ব্যবহারে বিপ্লব আসে আর এটি বিশ্বব্যাপি জনপ্রিয় হয়ে উঠে। 

লিংকডইন প্রোপাইল কিভাবে সাজাবেন?

প্রোফাইল কমপ্লিট রাখুন

আপনি যেহেতু একজন প্রোফেশনাল তাই নিজের প্রোফেশনাল একাউন্ট টিকে অবশ্যই সুন্দর করে সাজিয়ে রাখুন। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত যাবতীয় তথ্য দিয়ে এটি পূরন করে রাখুন। লিংকডইন প্রোফেশনালদের জন্য একটি ডেডিকেটেড প্লাটফর্ম। তাই এখানে শুধু নিজের এডুকেশনাল কোয়ালিফিকেশন নয়, পাশাপাশি স্কিল, এক্সপেরিয়েন্স ও ভাষাগত দক্ষতাও যোগ করতে হবে। আপনি যদি ফ্রীল্যান্সার হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি কি কি সার্ভিস দিচ্ছেন তা স্পষ্ট করে উল্লেখ করে দিন। এছাড়া আপনার এজেন্সি থাকলে সেটার সার্ভিস সম্পর্কেও উল্লেখ করুন। 

আপডেট রাখুন প্রোফাইল

প্রোফাইল শুধু একবার সুন্দর করে সাজিয়ে রাখলেই হবে না সাথে নিয়মিত আপডেট রাখতে হবে। রেগুলার নিজের বিভিন্ন ইনফরমেশন ও এক্টিভিটি আপডেট করুন। কোনো ওয়ার্ক শপে এটেন্ড করা কিংবা সেমিনারে অংশগ্রহন করা, নতুন কোনো কোর্স করলেন এসব পোস্ট করুন। মোটকথা লিংকডইনে একটিভ থাকুন। এমন না হয় শুধু একাউন্ট করে ফেলে রাখলেন। আপনার আপডেটেড প্রোফাইল ভিজিট করে ক্লায়েন্ট, আপনার প্যাশন, ক্যারিয়ার গোল সম্পর্কে পজিটিভ ধারনা পাবে। 

প্রোফাইল পিকচার

এটি লিংকডইনের গুরত্বপূর্ণ একটি অংশ। অন্যান্য সোস্যাল মিডিয়ার মতো এখানে রঙ বেরঙের ঢঙি ছবি বা সেলফি দেয়া যাবে না। কারন এটা প্রোফেশনাল প্লাটফর্ম যেখানে আপনাকে ফরমাল ছবি দিতে হবে। আপনার প্রোফাইল পিকচার ক্লায়েন্টের নিকট ফার্স্ট ইম্প্রেশনের মতো কাজ করবে। ছবির পাশাপাশি এর ব্যাকগ্রাউন্ডের দিকেও নজর দিন। কোনোভাবেই যেন এটি অতিরিক্ত রঙচঙা না হয়। ভালো হয় সাদা অথবা নীল ব্যাকগ্রাউন্ড রাখতে পারলে। 

আকর্ষনীয় প্রোফাইল ব্যাকগ্রাউন্ড

পটেনশিয়াল ক্লায়েন্টদের আকর্ষন করার জন্যে লিংকডিন প্রোফাইলের ব্যাকগ্রাউন্ড এর ভূমিকা অনেক। আপনার প্রোফাইল পিকচারের ব্যাকগ্রাউন্ড নিজের মতো করে বানিয়ে নিতে পারেন। ক্যানভার সাহায্যে এখন সহজেই এসব ডিজাইন করা যায়। যদি আপনার এজেন্সি বা বিজনেস থাকে তাহলে সেটার একটা আকর্ষনীয় ব্যানার লোগোসহ ব্যাকগ্রাউন্ড হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। ব্যানারে আপনার সার্ভিস সম্পর্কে শর্ট লেখা থাকতে পারে।

যথাযথ হেডলাইন লিখুন

আপনার প্রোফাইলের হেডলাইনটি যথাযথভাবে লিখুন যাতে যে কেউ পড়ে তা সহজে বুঝতে পারে। এটি আপনার বিজনেস বা জব রিলেটেড কিছুও হতে পারে। আপনি যদি চাকরিপ্রার্থী হন তবে তা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিন। হেডলাইনটি ১২০ ক্যারেক্টারের মধ্যে লিখতে হয়। তাই এখানে প্রতিটিও দাড়ি কমাও গুরুত্বপূর্ণ। এখানে অপ্রাসঙ্গিক বা অপ্রয়োজনীয় কোনো কথা লেখা যাবে না। একটি সংক্ষিপ্ত কিন্তু আকর্ষনীয় হেডলাইন আপনার সম্পর্কে জানতে আগ্রহী করে তুলবে। 

সামারি হউক আপনার প্রতিচ্ছবি

লিংকডইনের এই অংশে নিজের ক্যারিয়ার অবজেক্টিভ, স্কিল, এক্সপেরিয়েন্স ও এচিভমেন্ট নিয়ে লেখা যায়। লিংকড ইন থেকে কাজ পেতে চাইলে এই অংশটুকু খুব ক্রিয়েটিভলি লিখুন। নিজের স্কিলসেট ও এক্সপেরিয়েন্সগুলোকে উল্লেখ করুন এমনভাবে যাতে তা যেকোনো ক্লায়েন্টকে আকর্ষন করতে সমর্থ হয়। অনেক ক্লায়েন্ট শুধু সামারি পড়েই কাজ দিয়ে থাকে। এ অংশে আপনার লেখার জন্যে ২০০০ক্যারেক্টার বরাদ্দ আছে। তাই প্রতিটি ক্যারেক্টারকে ক্রিয়েটিভলি কাজে লাগান। অনেক সময় আপনার মেইল আইডি বা অন্য কোন মাধ্যম না থাকায় ক্লায়েন্ট আপনার প্রোফাইল দেখে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। তাই নিজের প্রোফেশনাল মেইল আইডিটি শেয়ার করুন। 

কাজের অভিজ্ঞতা জানান

লিংকডিন এ অবশ্যই আপনার কাজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। তবে সেটা অনেক বড় আকারে হওয়া উচিৎ নয় । অনেকেই এটা করে। কিন্তু নিজেকে একবার প্রোফাইল ভিউয়ার হিসেবে চিন্তা করে দেখুন আপনি কি এত এত লেখা পড়তে আগ্রহী কিনা। ভিউয়ারের মনোযোগ আকর্ষন করতে যে দুটি বিষয় খেয়াল রাখবেন তা হলোঃ 

আপনার পেশাগত অর্জন ও দায়িত্বসমূহ।

আপনি যেখানে কর্মরত আছেন বা ছিলেন সেখানে প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আপনার ভূমিকা কি?

পূর্বের প্রতিষ্ঠানে আপনার ভূমিকা চাকরিদাতার কাছে আপনাকে বেশি যোগ্য করে তুলবে।

শেয়ার করুন সাম্প্রতিক স্কিল

আপনি দশ বারো বছর আগে কি স্কিল অর্জন করেছেন বা কি পড়েছেন তার থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো আপনি লাস্ট ছয় মাসে কি পড়েছেন বা কি সাফল্য পেয়েছেন। যে বিষয়গুলো প্রাসঙ্গিক কেবল সেগুলোই উল্লেখ করুন। যত সংক্ষেপে নিজেকে উপস্থাপন করা যায় ততই ভালো। 

লিংকড ইন থেকে ক্লায়েন্ট পেতে করণীয়

আমরা এতক্ষন ক্লায়েন্টকে আকর্ষন করার জন্যে কিভাবে প্রোফাইল সাজাতে হয় সে সম্পর্কে জেনেছি এবারে আমরা ক্লায়েন্ট পাওয়ার আরো কিছু ট্রিকস জেনে নিবো।

কানেকশোন তৈরি করুন

লিংকড ইনে কানেকশন তৈরি করা অনেক বড় একটি দক্ষতা। লিংকডিনে তাদেরকেই বেশি ইনফ্লুয়েনশিয়াল মনে করা হয়, যারা বিভিন্ন শিক্ষামূলক পোস্ট সব সময় শেয়ার করে থাকে।

এমন মানুষদের সাথে কানেক্ট হতে পারেন এতে ফিউচার হেল্পফুল হবে এবং নতুন অনেক কিছুই শিখতে পারবেন। এছাড়া নিজের নিশকে ফোকাস করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও পটেনশিয়াল ব্যক্তিদের রিকোয়েস্ট পাঠাতে পারেন। যেমনঃ বিভিন্ন কোম্পানির মেনেজিং ডিরেক্টর, সিইও ইত্যাদি।

টার্গেট মার্কেট ফিক্সড করুন

একজন ফ্রীল্যান্সার তার নিশ সম্পর্কে আইডিয়া লাভের পর তার দায়িত্ব হলো নিজের টার্গেট মার্কেট সিলেক্ট করা। আইডিয়াল ক্লায়েন্টদের ডিফাইন করা ও টার্গেট মার্কেট সিলেক্ট করা লিংকডিনের সবচেয়ে ইফেক্টিভ স্ট্রাটেজিগুলোর একটি। তাদের সাথে যত সম্ভব রিচ আউট করুন। আপনার সার্ভিস কাদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন তা মাথায় রেখে ক্লায়েন্ট খুজুন। ক্লায়েন্ট পেতে সার্চ ইঞ্জিনের সাহায্য নিতে পারেন।

টার্গেটেড ক্লায়েন্টকে ইনবক্স করুন

যখন কাউকে আইডিয়াল ক্লায়েন্ট মনে হবে তখন তাকে ইনবক্সে মেসেজ করতে পারেন। মেসেজে একইসাথে নিজের স্কিল হাইলাইট করার পাশাপাশি এমন টেক্সট লিখুন যাতে ক্লায়েন্ট মনে করেন তিনি আপনার কাছ থেকে সার্ভিস নিয়ে দেখতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে কোনোভাবেই স্প্যামিং করা যাবে না। অনেকেই কানেক্টেড হওয়ার সাথে সাথেই নিজের সার্ভিস প্রমোট করার জন্যে উঠেপড়ে লেগে যায়। এ কারনে অনেকেই স্প্যামার বা ব্লক হয়ে যান। সোস্যাল মিডিয়ায় আপনাকে অবশ্যই সোস্যাল কালচার মেইনটেইন করেই অপারেট করতে হবে। তাই কাউকে ইনবক্স করার আগে তার সম্পর্কে রিসার্চ করুন । একটা বন্ডিং বা রিলেশন বিল্ড আপ করে এরপর একটা স্টেপ নিতে পারেন।

হাই কোয়ালিটির কন্টেন্ট পোস্ট করুন

লিংকডিন থেকে ক্লায়েন্ট পেতে হলে নিয়মিত হাই কোয়ালিটির ভিডিও, ছবি, ব্লগ পোস্ট করুন। ব্লগের ক্ষেত্রে অবশ্যই সেগুলো ইনফরমেটিভ ও অন্যদের থেকে ইউনিক রাখুন। খেয়াল করে রেগুলার বেসিসে  কন্টেন্ট পোস্ট করুন। যতবেশি রেগুলার পোস্ট করতে পারবেন তত বেশি রেগুলার মানুষের এটেনশন নিতে পারবেন। পোস্টের ভালো রিচের জন্যে সঠিক কিওয়ার্ড ও হ্যাশট্যাগ ইউজ করতে হবে।

যেকারনে লিংকডিন ব্যবহার করবেন

লিংকড ইন নেটওয়ার্কি-এ সাহায্য করে। একবার লিংকডইনে ভালো পরিচিতি পেলে তা আজীবন কাজে লাগবে। জীবনের যেকোনো সময়ই জব পেতে সাহায্য করবে। অথবা আপনার যদি বিজনেস থাকে তাহলে লিংকড ইন ব্যবহার করে ভালো একটা ব্রান্ডিং করতে পারেন। এক্সপার্টদের হায়ার করতে পারেন এই প্লাটফর্ম থেকে। সব সময় প্রোফেশনাল ও ক্রিয়েটিভদের কার্জকর্ম ও দিক নির্দেশনা পাবেন যা ক্যারিয়ারে অনেক হেল্প করবে। লিংকডিনের পেইড অপশন ব্যবহার করে কোটি কোটি মানুষের কাছে আপনার পণ্য সার্ভিসের বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

LinkedIn Membership কি?

লিংকড ইন হলো সবচেয়ে বড় ক্যারিয়ার কেন্দ্রিক সামাজিক প্লাটফর্ম। লিংকডইন মেম্বারশীপ হলো একটি পেইড মেম্বারশিপ সিস্টেম। এর জন্যে লিংকডইনকে পে করতে হবে। মূলত জব সীকার, ক্লায়েন্ট সীকার ও নিয়োগকারীদের জন্যে এই প্রিমিয়াম মেম্বারশীপ। এর জন্যে এক মাসের ফ্রী ট্রায়ালসহ বছরে ৩০-১০০ডলার পর্যন্ত পে করতে হয়। প্রিমিয়াম মেম্বারগন অনেক বেশি সুযোগ সুবিধা পেয়ে থাকে।

লিংকড ইন ব্যবহারের সুবিধা

অধিক প্রোফেশনাল ও ক্রিয়েটিভদের সাথে কানেক্টেড থাকতে পারবেন।

জব সিকার হলে জব খুজে পেতে পারেন।

এই প্লাটফর্ম থেকে আপনার বিজনেসের জন্যে ক্লায়েন্ট পেতে পারেন।

বিজনেসের প্রমোট ও ব্রান্ডিং করতে পারেন।

গুরুত্বপুর্ণ ব্যক্তিদের পরামর্শ পাবেন।

এক্সপার্টদের খুজে পাবেন নিয়োগ দেয়ার জন্যে।

শেষকথা

পেশাজীবীদের প্লাটফর্ম লিংকডইন। জব সিকার কিংবা রিক্রুটার উভয়ের জন্যেই আশীর্বাদ এই সোস্যাল মাধ্যম। শুধু আপনাকে জানতে হবে ও এপ্লাই করতে হবে উপযুক্ত স্টেপগুলো। তাহলে এই প্লাটফর্মকে কাজে লাগিয়ে ক্যারিয়ারে উন্নতি করা সম্ভব।

 

4728dbbc5c6763f37c33f5ebb100ad9e?s=150&d=mm&r=g

Tanvir Brain

 themarketerbd@gmail.com  https://www.monsterbangla.com

We will be happy to hear your oughts

Leave a reply

Monster Bangla
Logo
Compare items
  • Total (0)
Compare
Shopping cart